• বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৫ ১৪২৭

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
প্রাথমিকে সাড়ে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ বিএনপির এমপি সিরাজের ৫ রেস্তোরাঁয় ভ্যাট ফাঁকির মামলা সুষ্ঠুভাবে চলছে লালমনিরহাট ইউপি উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ উপনির্বাচন নিয়ে অন্ধকারে ঢিল ছুড়ছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের উৎসবের আমেজে রংপুরে চলছে ইউপি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ

অবাধ্য চুলকে বশে আনবে গোলাপজল 

প্রকাশিত: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০  

বিশ্বজুড়ে গোলাপজলের ব্যবহার রয়েছে প্রাচীনকাল থেকে। বিশেষ করে সৌন্দর্য চর্চায় ব্যবহার হত এটি। ত্বকের জৌলুস ধরে রাখতে এর জুরি মেলা ভার। এমনকি রান্নায়ও ব্যবহার করা হয় বেশ ভালোভাবেই। 
সব ধরনের ত্বকের রোগ দূর করতে গোলাপ জল দারুন কাজে আসে। তাই তো এর এত জনপ্রিয়তা। প্রসঙ্গত, গোলাপ জল ত্বককে প্রয়োজনীয় আদ্রতা প্রদান করে। ফলে ত্বকের সৌন্দর্য আপনা থেকেই বৃদ্ধি পায়। এছাড়াও গোলাপজলের কিছু ভিন্ন ব্যবহার আছে। জেনে নিন সেগুলো- 

ত্বকের জ্বলুনি কমাতে

দাড়ি কাটার পর ত্বকে জ্বালাভাব হতেই পারে। এক্ষেত্রে শেইভের পর গালে খানিকটা গোলাপ জল লাগিয়ে নিন। এর ত্বক শীতলকারী উপাদান জ্বালাভাব কমিয়ে আরাম দেবে। এছাড়াও রোডে গেলে অনেকের ত্বকে জ্বালাপোড়া করে। তারা রোদে যাওয়ার আগে গোলাপজল লাগিয়ে নিন।

অবাধ্য চুলকে বশে আনবে

চুলের আগা ফাটা কিংবা রুক্ষ হয়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয় সবারই। উস্কখুস্ক চুলে বুলিয়ে নিন গোলাপজল। বশে আসবে আপনার অবাধ্য চুল।

ত্বকের পিএইচ বাড়ায়

গোলাপজল ত্বকের পিএইচ বাড়িয়ে তোলে। এতে করে সূর্যের বেগুনি রশ্মি থেকে রক্ষা পায়। মানুষের ত্বকের গড় পিএইচ চার দশমিক সাত। সাধারণ কলের পানিতে পিএইচ ছয় দশমিক সাত থেকে আট দশমিক আট এর মধ্যে থাকে। সেখানে গোলাপজলের গড় পিএইচ পাঁচ দশমিক শূন্য।

বডি লোশনের আগে ব্যবহার

যাদের ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক এবং চামড়া ওঠার সমস্যা রয়েছে তারা প্রথমে ত্বকে গোলাপজল স্প্রে করে ভেজা অবস্থাতেই লোশন লাগিয়ে নিতে হবে। এতে ত্বক আর্দ্র থাকবে। 

গোসলের পানিতে মিশিয়ে ব্যবহার

সারাদিন খাটাখাটনির পর গোসল শরীরের ক্লান্তি ঝেরে ফেলতে সাহায্য করে। গোসলের পানিতে খানিকটা গোলাপজল মিশিয়ে নিলে তা ক্লান্তি দূর করবে। তাছাড়া সুগন্ধিও ছড়াবে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –