• বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৭

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
গ্রামীণ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণসহ মজবুত করে তৈরির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর রংপুরে তিন ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে সাবেকরাই ফের নির্বাচিত নির্বাচনে ব্যর্থতার জন্য বিএনপি নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত: কাদের হাতীবান্ধার দুই ইউপিতে নৌকা নিয়ে `বাবার চেয়ারে` বসলেন ছেলে নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়মিত সাক্ষাৎ করেও খালেদার গৃহবন্দির অভিযোগ!

এখন অনলাইনেই করা যাবে জিডির আবেদন

প্রকাশিত: ১৬ অক্টোবর ২০২০  

কোনো কিছু হারিয়ে গেলে বা কোনো কারণে নিজেকে অনিরাপদ মনে হলে জিডি করার কথা অনেকেই ভাবেন। কিন্তু অনলাইনেও যে জিডি করা যায়, তা অনেকেই জানেন না। জিডি হলো সাধারণ ডায়েরি বা কোনো বিষয়ে সাধারণ বিবরণ। প্রাপ্তবয়স্ক যেকোনো ব্যক্তি থানায় এটি করতে পারবেন।

এক সময় জিডি করতে হলে থানায় গিয়ে আবেদন করতে হতো। কিন্তু এখন অনলাইনেই জিডির আবেদন করা যাবে। নাগরিক সুবিধাকে সহজ করতে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অ্যাক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের সহয়তায় অনলাইনে জিডি আবেদনের সুবিধা চালু করেছে বাংলাদেশ পুলিশ।

অনালাইনে আবেদনের জন্য প্রয়োজন হবে জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর, জন্ম তারিখ ও একটি সচল মোবাইল নম্বর। তিনটি সহজ ধাপে সেরে ফেলা যাবে এই আবেদন।

কোন ঠিকানায় এবং কীভাবে করবেন-

প্রথম ধাপ

প্রথমে এই ঠিকানায় জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর, জন্ম তারিখ ও মোবাইল নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। স্মার্ট কার্ডের জন্য ১০ সংখ্যার নম্বর ও পুরোনো জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য ১৭ সংখ্যার নম্বর ব্যবহার করতে হবে। ১৪ ডিজিটের এনআইডির ক্ষেত্রে প্রথমে জন্মসাল যোগ করতে হবে।

সবকিছু ঠিকমতো প্রদান করলে প্রদানকৃত মোবাইল নম্বরে এসএসএমের মাধ্যমে একটি কোড আসবে, সেটি প্রদান করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে। কোডটিকে পরবর্তী পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করতে হবে, সেক্ষেত্রে ইউজার নাম হবে মোবাইল নম্বর। চাইলে পাসওয়ার্ডটি পরবর্তীতে পরিবর্তন করা যাবে।

দ্বিতীয় ধাপ

এই ধাপে জিডি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রদান করতে হবে। শুরুতে নিজের জন্য নাকি অন্যের জন্য জিডি আবেদন করছেন তা নির্বাচন করে দিতে হবে। এরপর জিডির ধরন (হারানো/নিখোঁজ বা পাওয়া) নির্বাচন করতে হবে। কোন থানায় জিডি আবেদন করতে চান তা নির্বাচন করতে হবে তালিকা থেকে।

তৃতীয় ধাপ

এই পেইজে প্রথম দুই ধাপে প্রদানকৃত তথ্য ও আইডি কার্ড ব্যবহার করে সার্ভার থেকে প্রাপ্ত তথ্য (নাম, ঠিকানা, ছবি ইত্যাদি) প্রদর্শিত হবে। প্রয়োজনে বর্তমান ঠিকানা সম্পাদনা করা যাবে। এরপর ঘটনার স্থান ও ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ লিখতে হবে। চাইলে ঘটনার স্বপক্ষের কোনো ডকুমেন্টস যুক্ত করা যাবে। এরপর ইমেইল আইডি প্রদান করে ও স্বাক্ষর আপলোড করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করলে জিডির আবেদন সম্পন্ন হবে।

জিডি সার্টিফিকেট থানা থেকে ইস্যু হওয়ার পর এসএমএসের মাধ্যমে তা জানানো হবে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –