ব্রেকিং:
দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩৬১ জনে। শনিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩৬১ জনে। শনিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১১ ১৪২৭

  • || ০৮ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
লালমনিরহাটে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে এসেছে জাতিসংঘের সদস্যপদ- প্রধানমন্ত্রী বিদেশে বিনিয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন রপ্তানিকারকরা দিনাজপুরে আরো ১৮ জন করোনায় আক্রান্ত রংপুরে মৃদুলের বাড়িটি এখন ‘মাছের বাড়ি’
১১

করোনায় বৈশ্বিক উন্নয়ন পিছিয়েছে দুই দশক- বিল গেটস

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০  

মহামারি করোনাভাইরাসের বিস্তার বৈশ্বিক উন্নয়নকে দুই দশকেরও বেশি পেছনে ঠেলে দিয়েছে। সম্প্রতি বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটসের যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত দাতব্য সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি বছরটি নিদারুণ কষ্টের মধ্য দিয়ে পার করতে হচ্ছে। করোনা মহামারির ফলে বৈশ্বিক উন্নয়ন পিছিয়ে গেছে। বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ চরম দারিদ্র্যসীমার মধ্যে ঢুকে পড়েছে। বিভিন্ন রোগ ও বৈষম্যে ভুগছে বহু পরিবার। অপুষ্টি বৃদ্ধি পেয়েছে। খুব কম শিশু টিকা পেয়েছে।

বিশ্বের অন্যতম ধনী বিল গেটস বলেছেন, আশা করছি, ২০২১ সালের শুরুতেই কার্যকর ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। করোনার ভ্যাকসিন বের হলেই গরিব দেশগুলো যাতে সহজে পেতে পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

বিল গেটস বলেছেন, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য যুক্তরাষ্ট্র অন্য যে কোনো দেশের চেয়ে নিজেদের প্রতি বেশি মনোনিবেশ করেছে। অথচ মহামারির এ সময়ে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় দেশ হিসেবে দক্ষতা ও উদারতা উভয় ক্ষেত্রেই তাদের কি আগের ভূমিকায় ফিরে আসা উচিত নয়? নিউইয়র্ক টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বিল গেটস এ কথা বলেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পর থেকেই বিল গেটস টিকা উদ্ভাবনের জন্য মোটা অঙ্কের অর্থ অনুদান দিয়েছেন। গরিব দেশগুলো যাতে কম খরচে টিকা পেতে পারে, সে জন্য নানা প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। এছাড়া এ ইস্যুতে কংগ্রেসকেও ৪০০ কোটি ডলার ছাড় দেয়ার অনুরোধ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন, বিশ্বের প্রায় ৪ কোটি মানুষ চরম দারিদ্র্যের মধ্যে পড়েছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর প্রতি সপ্তাহ আগের চেয়ে প্রায় এক মিলিয়নের বেশি মানুষ চরম দারিদ্র্যের শিকার হয়েছেন।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) পূর্বাভাসের বরাত দিয়ে গেটস ফাউন্ডেশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারির ধাক্কা শামলে ওঠার জন্য বিশ্ব অর্থনীতি বাঁচাতে বিশ্বেজুড়ে ১৮ ট্রিলিয়ন ডলারের উদ্দীপনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। এ সত্ত্বেও বিশ্ব অর্থনীতি আগামী বছরের শেষ নাগাদ ১২ ট্রিলিয়ন ডলার হারাবে; যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধির বৃহত্তম ক্ষতি।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –
আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর