বুধবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬   ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১

দিনাজপুরে অবৈধভাবে ২৮০০ গাছ কেটে বিক্রির প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০১৯  

দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯নং আস্করপুর ইউনিয়নে সরকারের অনুমতি ছাড়াই খাস জমিতে রোপন করা ২ হাজার ৮০০ গাছ কাটার অভিযোগে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও সময়বায় সমিতির সভাপতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। 

২ ডিসেম্বর সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিনাজপুর সদর উপজেলার আস্করপুর ইউনিয়নের নিমাইখাড়ি এলাকায় এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়। 

মানববন্ধন চলাকালীন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অবসরপ্রাপ্ত সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আলিম উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা খোরশেদ আলী, আস্করপুর ইউপি মেম্বার ফরিদা ইয়াসমিন, আস্করপুর ইউপি মেম্বার মোঃ ফারজিনা, নিমাইখাড়ি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সদস্য উম্মেথানা লিপি, নুরে জান্নাতসহ প্রমুখ এলাকাবাসী। 

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ১০/ ১২ বছর পূর্বে নিমাইখাড়ি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সদস্যরা আস্করপুর ইউনিয়নের দেবীপুর থেকে নালাহার গ্রামের সীমানা পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ কাড়িটির বাঁধের উভয় পার্শ্বের জমিতে ইউক্যালিপটাস, শিশু, বোট, লম্বুসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রোপন করেন। গত ৩ বছর পূর্বে সেই গাছ থেকে ২ হাজার ৫০০টি গাছ কর্তন করেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান  মোঃ মোশারফ হোসেন। এই ঘটনায় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) কাছে অভিযোগ করা হলেও গাছ কর্তনের ব্যাপারে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি উপজেলা প্রশাসন। এরপর নিমাইখাড়ি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির বর্তমান সভাপতি মোঃ সৈয়দ আলী ৩ শ গাছ কর্তন করে আত্মসাত করেন। সৈয়দ আলী ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গাছ কর্তনের পূর্বে সরকারী কোন নিয়ম মানেনি। গাছগুলোর বর্তমান আনুমানিক বাজার প্রায় ১৪ লক্ষ টাকা। অথচ গাছ কেটে বিক্রির কোন টাকা সরকারী বা উপকারভোগীদের দেয়া হয়নি। এব্যাপারে নিমাইখাড়ি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি ও এলাকাবাসী জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বরাবরে বর্তমান সভাপতি মোঃ সৈয়দ আলীর বিরুদ্ধে পৃথক ২টি অভিযোগ করেছে।

মানববন্ধনে সমবায় সমিতির সদস্যরা ও এলাকাবাসীরা অবিলম্বে তদন্তপূর্বক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান  মোঃ মোশারফ হোসেন ও নিমাইখাড়ি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির বর্তমান সভাপতি মোঃ সৈয়দ আলীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী। 

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর