• রোববার   ২৪ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১১ ১৪২৭

  • || ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
বিশ্বে জাহাজ শিল্পে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ: নৌ প্রতিমন্ত্রী পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত বিশ্বের প্রতি বাংলাদেশের অটল প্রতিশ্রুতি দিনাজপুরে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চাকরিচ্যুত প্রবাসীদের পুনর্বাসনের পরিকল্পনা করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী অর্থবিত্ত কখনো রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না: তথ্যমন্ত্রী

পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা রেললাইন সম্প্রসারণ করবে সরকার: রেলমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৩০ ডিসেম্বর ২০২০  

রেলপথ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন এমপি বলেছেন, রেল যোগাযোগের সক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে রেল ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে সারা দেশে পরিকল্পিতভাবে আধুনিক ও উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়ন সাধন করে চলেছে সরকার। 
তিনি বুধবার দুপুরে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পর্যন্ত রেল লাইন সম্প্রসারণ বিষয়ে অংশীজনদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় একথা বলেন। 

এসময় মন্ত্রী বলেন, চতুর্দেশীয় ব্যবসা-বাণিজ্যের সুবিধা সম্বলিত বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণ করা হলে ভারত নেপাল ও ভুটানের সাথে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণসহ বহুমাত্রিক সফলতা অর্জন সম্ভব হবে।

পঞ্চগড়বাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ও ভারতের আগ্রহের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের প্রকল্প হাতে নিয়েছে। 

তিনি আরো বলেন, ১৯৬৫ সালে পাক ভারত যুদ্ধের পর ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে ৮টি পয়েন্টে রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল ইতোমধ্যে ৫টি চালু করা হয়েছে। অচিরেই বাকি তিনটি চালু করা হবে। 
জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে সংসদ সদস্য মো. মজাহারুল হক প্রধান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট, রেল বিভাগের প্রজেক্ট ডিরেক্টর মো. আবু জাফর মিয়া প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এছাড়া সভায় জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, রেলবিভাগের কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের উদ্দ্যোগে পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর পর্যন্ত নতৃন রেললাইন নির্মাণের 
সমীক্ষা ও নকশা সম্পন্ন হয়েছে। ৪৭ দশমিক ০৪ কিলোমিটার নতৃন রেললাইন, ৫টি ষ্টেশন, ৪টি ব্রীজ, ১৪টি কালভার্ট নির্মাণ করা হবে। এজন্য ৮৬০ হেক্টর জমি অধিগ্রহণ করা হবে। যার প্রক্রয়া চলমান রয়েছে। আধুনিক সুবিধা সম্পন্ন রেললাইন ও রেল ষ্টেশন নির্মাণে প্রাথমিকভাবে ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ৭শ’ কোটি টাকা। পরে মন্ত্রী পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা পর্যন্ত প্রস্তাবিত রেল লাইন এলাকা সরেজমিন পরিদর্শন করেন। 

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –