• রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২১ ১৪২৬

  • || ১১ শা'বান ১৪৪১

সর্বশেষ:
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরো ৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন চাল নিয়ে কর্মহীন মানুষের বাড়ি বাড়ি ঘুরছেন রসিক মেয়র করোনার রোধে রংপুরে হাত ধোয়া শেখাচ্ছেন সেনা সদস্যরা করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর বিশ্বের ফুটবল বদলে যাবে বলে মনে করেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো করোনাভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে ২০২০ সালের হজ্জ মৌসুমে বিভিন্ন পদে মক্কা, মদিনা এবং জেদ্দার জন্য স্থানীয়ভাবে অস্থায়ী হজকর্মী নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ হজ অফিস জেদ্দা
১০১

বাংলাবান্ধায় পরীক্ষার আওতায় আনা হয়েছে নতুন চালকদের   

প্রকাশিত: ১০ মার্চ ২০২০  

পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে যেসব যাত্রী ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে তাদের সর্তকতার সঙ্গে পরীক্ষা-নিরিক্ষা করে দেখছেন বন্দরের মেডিক্যাল টিমের সদস্যরা।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, গত রোববার (০৮ মার্চ) বাংলাদেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত তিনজন রোগী সনাক্ত হওয়ায় পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা বন্দরে নতুন করে নেওয়া হয়েছে বাড়তি সতর্কতা। এই বন্দর দিয়ে প্রতিদিন প্রায় কয়েকশ ট্রাক ড্রাইভার ভারত নেপাল ও ভুটান থেকে পাথর বহন করে নিয়ে আসে এবং তারা দীর্ঘসময় অবস্থান নেয় বন্দরে। ফলে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছিল উত্তরের জনপদ পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে। এবার নতুন করে চালকদের করোনা পরীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করায় অনেকটায় শঙ্কামুক্ত হয়েছে বলে জানায় চালকসহ স্থানীয়রা।

গতকাল সোমবার (০৯ মার্চ) থেকে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ভারত, নেপাল ও ভুটান থেকে আসা ট্রাক চালকদের ‘করোনা’ শনাক্তের পরীক্ষা নিরিক্ষার আওতায় আনা হয়েছে। তবে শুধু হ্যান্ড থার্মাল স্ক্যানার যথেষ্ট নয় বলে মনে করছেন যাত্রী ও স্থানীয়রা।
সরেজমিনে বাংলাবান্ধা বন্দর ঘুরে দেখা যায়, পাসপোর্টধারী যাত্রী ও ভারত, নেপাল, ভুটানের চালকদের সতর্কতার সহিত পরীক্ষা-নিরিক্ষা করছে মেডিক্যাল টিমের সদস্যরা। তবে যাত্রীসহ চালকদের দাবি বন্দরে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উন্নতমানের প্রযুক্তি ব্যবহারের। 

ভারত থেকে ঘুরে আসা দিনাজপুরের রেহানা পারভীন বলেন, করোনা ভাইরাসের জন্য বন্দরে মেডিক্যাল টিম আমাদের পরীক্ষা করেছে। বিষয়টি অনেক ভালো লাগলো। তবে গুরুত্বপূর্ণ এই বন্দরটিতে যদি স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উন্নতমানের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয় তবে অনেকটা ভালো হয়।

ভারতের খড়িবাড়ি থেকে আসা জগদীস রায় ও ফাসিদেয়া থেকে আসা বৈশাগু বলেন, ভারতে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে বাংলাদেশে এসে আবারো পরীক্ষা করেছি। আশাকরি এই ভাইরাসটি যেন বাংলাদেশে না ছড়িয়ে পড়ে।

ভারতের ফুলবাড়ি থেকে আসা ট্রাক চালক মকবুল ও ভুটান থেকে আসা নিমা সেরুযা বলেন, এরআগে বাংলাদেশে আমাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হতো না। নতুন করে চালু করায় বন্দরটি অনেক সুরক্ষিত হয়ে গেছে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের দায়িত্বরত মেডিক্যাল অফিসার ডা. পলাশ চন্দ্র সাহা বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মোতাবেক গত ২৮ জানুয়ারি থেকে সকল যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে নতুন করে বন্দর কর্তৃপক্ষ এবং জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সহযোগিতায় চালকদের করোনা পরীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত সন্দেহজনক কাউকে পাওয়া যায় নি।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মেহেদী হাসান খান বাবলা বলেন, গুরুত্বপূর্ণ এই বন্দরে পাসপোর্টধারী যাত্রীদের পাশাপাশি ভারত, নেপাল, ভুটানের চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় নিয়ে আসায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগকে সাধুবাদ জানচ্ছি।

এদিকে, সোমবার বিকেলে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এক জরুরি সভার মাধ্যমে জানিয়েছে জরুরি সমস্যা মোকাবেলায় পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের চার তলায় পাঁচটি রুমে ১০টি আইসোলেশন ইউনিট গঠন করা হয়েছে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –
পঞ্চগড় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর