ব্রেকিং:
বাংলাদেশে পৌঁছেছে ভারতের উপহারের ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা ‘কোভিশিল্ড’। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার কিছু আগে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটটি। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এ টিকা বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে দিলো ভারত সরকার।
  • শুক্রবার   ২২ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৮ ১৪২৭

  • || ০৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
দেশে করোনার টিকাদান শুরু হবে ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৯ লাখ পরিবারকে বাড়ি দিচ্ছে সরকার ঠাকুরগাঁওয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে পলিথিনে ঢাকা বীজতলা ৪’শ কোটি টাকায় প্রতিবন্ধীদের জন্য ক্রীড়া কমপ্লেক্স করবে সরকার বিনাশুল্কে বাংলাদেশি ৮২৫৬ পণ্য যাচ্ছে চীনের বাজারে

যেভাবে মুরগির মাংস খাওয়া ক্ষতিকর

প্রকাশিত: ৮ জানুয়ারি ২০২১  

প্রোটিনের একটি আদর্শ উৎস মুরগির মাংস। এই মাংসে চর্বি বা ফ্যাটের পরিমাণ কম থাকায় বেশিরভাগ মানুষ মুরগির মাংস পছন্দ করেন। মুরগির মাংস খাওয়ার ফলে শরীরের ওপর এর কোনো ক্ষতিকর প্রভাব রয়েছে কিনা, এ প্রশ্ন অনেকের।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত পুষ্টিবিদ লওরেন মানেকারের অভিমত প্রকাশিত হয়েছে। মানেকার বলেন, মুরগির মাংস অবশ্যই পছন্দ করি, তা যদি কিছু নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে রান্না করা হয়। ‘বেইকড’, ‘গ্রিলড’ ও সৌতে করা মুরগির মাংস যেমন স্বাস্থ্যকর। তবে ডুবো তেলে লম্বা সময় ভাজা লবণ মেশানো মুরগির মাংস খাওয়া ঠিক নয়।

তাই  ‘ফ্রাইড চিকেন’ যে একেবারেই বাদ দিতে হবে এমন নয়, পরিমাণে কম খেতে হবে। এই মাংসে যদি বাড়তি চর্বি, লবণ কিংবা চিনি যুক্ত না করা হয়, তবে এই মাংস স্বাস্থ্যকর।

উপকারিতা-

১. হাড়ের সুস্বাস্থ্যের জন্য মুরগির মাংস খেতে পারেন। প্রোটিনের আদর্শ উৎস মুরগির মাংস খাদ্যাভ্যাসে রাখলে তা  হাড়কে জোগাবে জরুরি পুষ্টি উপাদান।

২. মুরগির মাংস খেলে অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকে। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে ও হজমতন্ত্র সুস্থ থাকে।

৩. মুরগির মাংসে মেলে ‘কোলিন’, যা স্মৃতিশক্তি ও মস্তিষ্কের অন্যান্য কাজ সঠিকভাবে সম্পাদন হওয়ায় সহায়তা করে। মুরগির মাংস থেকে পাওয়া যায় ভিটামিন বি টুয়েলভ, যা স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

৪. অতিরিক্ত তেলে ভেজে না খেলে মুরগির মাংস হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী খাবার। মুরগির মাংস খাওয়া মাধ্যমে কোলেস্টেরল কমানো সম্ভব।

৫. যারা সন্তান নিতে চান তারা মুরগির মাংস খাবেন। নারীর প্রজনন ক্ষমতা ও পুরুষের বীর্জের গুণগত মান বাড়ায় মুরগির মাংস।

৬. আয়রনের অভাবে যারা ‘অ্যানেমিয়া’ বা রক্তশূন্যতায় ভুগছেন, তাদের একটি সাধারণ সমস্যা হলো অবসাদগ্রস্ত থাকা। খাদ্যাভ্যাসে পর্যাপ্ত মুরগির মাংস আয়রনের জোগান বাড়াবে, যা পক্ষান্তরে বাড়াবে কর্মশক্তি।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –