ব্রেকিং:
স্বাস্থ্যবিধি ও সরকারি নির্দেশনা মেনে রংপুর জেলায় প্রায় ছয় হাজার মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করবেন মুসল্লিরা। ঈদের দিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত মসজিদে মসজিদে এসব ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন রংপুর বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মহিউদ্দিন চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ঈদের সকালে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় ১০ মিনিটের ঝড়ের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে অর্ধশত ঘরবাড়ি। আহত হয়েছেন অন্তত পাঁচজন। পবিত্র ঈদুল ফিতর আজ
  • মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
আজ মুসলিমদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। লালমনিরহাটে ঈদের সকালে ১০ মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড ঘরবাড়ি রংপুরে ছয় হাজার মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত ঘরে বসে পরিবারের সঙ্গে ঈদের আনন্দ উপভোগ করুন: প্রধানমন্ত্রী জাতীয় কবি কাজী নজরুলের জন্মজয়ন্তী আজ
২৯০

রংপুরে বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে চলছে তদারকি   

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০২০  

চলতি বছরের গত ১ মার্চ থেকে বিদেশ হতে রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় এখন পর্যন্ত ৭ হাজার ৪৫৬ জন প্রবাসী দেশে এসেছেন।  এর মধ্যে বুধবার পর্যন্ত ৫ হাজার ২৫৩ জনের অবস্থান ও ঠিকানা শনাক্ত করা গেছে। বাকিদের শনাক্ত করতে সেনাবাহিনীর সদস্যরা প্রবাস ফেরতদের দেয়া ঠিকানায় খোঁজখবর রাখছেন।

রংপুর বিভাগের আট জেলায় বিদেশ ফেরত ৫ হাজার ২৫৩ জন প্রবাসীর ঠিকানা ও অবস্থান চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে নিয়মিত তদারকি করা হচ্ছে। এছাড়া শনাক্ত না হওয়া আরও ২ হাজার ২০৩ জনের সন্ধানে মাঠে কাজ করছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে সূত্র জানায়, রংপুর বিভাগে গাইবান্ধায় ৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ বিভাগে এখন পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টানে ৩ হাজার ৩৩৬ জন, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ৩ জন ও আইসোলেশনে ৯ জন রয়েছেন। এছাড়া হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে ২ হাজার ১১৫ জন।

রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় সরকারী ৬২টি চিকিৎসা কেন্দ্রে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় ৫৭৪টি বেড, ৮১৮ জন চিকিৎসক, ১ হাজার ৭১১ জন নার্স ও বেসরকারী ৭৯টি চিকিৎসাকেন্দ্রে ৫৩টি বেড, ১৮৮জন চিকিৎসক ও ৩৮৩ নার্স নিয়োজিত রয়েছে।

এছাড়া সরকারিভাবে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী ৭ হাজার ১৭১টি মজুদ ও ৪ হাজার ৪৬৫টি বিতরণ এবং বেসরকারিভাবে ৫টি মজুদ ও ৫০টি সুরক্ষা সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে।

এদিকে রংপুরে করোনার প্রাদুর্ভাব না ঘটলেও মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে রংপুর বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন। প্রস্তুতি হিসেবে বুধবার দুপুরে নগরীর বড় দুটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কেএম তারিকুল ইসলাম।

সভায় রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, আরপিএমপি পুলিশ কমিশনার আবদুল আলীম মাহমুম, বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. আমিন আহমেদ খান, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর