• বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৫ ১৪২৭

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
প্রাথমিকে সাড়ে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ বিএনপির এমপি সিরাজের ৫ রেস্তোরাঁয় ভ্যাট ফাঁকির মামলা সুষ্ঠুভাবে চলছে লালমনিরহাট ইউপি উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ উপনির্বাচন নিয়ে অন্ধকারে ঢিল ছুড়ছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের উৎসবের আমেজে রংপুরে চলছে ইউপি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ

রংপুরে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড 

প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

শরীরে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে রংপুরে স্বামী মোশারফ হোসেনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাাইব্যুনাল-১ এর বিচারক যাবিদ হোসেন। একই মামলায় অপর আসামি হত্যাকাণ্ডের সহযোগী হবিবর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ উভয়কে এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে এ রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার সময় স্বামী পলাতক থাকলেও অপর আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০৬ সালের ১৫ অক্টোবর রাতে রংপুর নগরীর মন্থনা এলাকায় স্বামী মোশারফ হোসেন যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী মর্জিনা খাতুনের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরে দেয়। এ সময় তার দাদাশ্বশুর হবিবর রহমান মর্জিনাকে জোরপূর্বক আটকে রাখে। মর্জিনার আহাজারি শুনে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করায়। এ সময় পুলিশ ও চিকিৎসকদের কাছে স্বামী ও দাদাশ্বশুর কর্তৃক কেরোসিন দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার কথা জানান মর্জিনা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৭ অক্টোবর তার মৃত্যু হয়।

নিহতের বড় ভাই রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ১১ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষে স্বামী মোশারফ হোসেনকে মৃত্যুদণ্ড ও সহযোগী দাদাশ্বশুর হবিবর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ উভয়কে এক লাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ প্রদান করেছেন বিচারক। একই সাথে স্বামী মোশারফ পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি ও ক্রোকি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেন আদালত।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এই মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রফিক হাসনাইন।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –