• শনিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৫ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
বৃষ্টি নামলেই শীত, লঘুচাপের ইঙ্গিত দেশে নতুন সুপারফুড ‘সাউ কিনোয়া-১’ ‘আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সরকার সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে’ স্বল্প খরচে বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্য গ্রহণ করতে হবে জমি নিয়ে সংঘর্ষে দুই যুবক নিহত: ঘটনা জেরে ৩০ বাড়িতে আগুন

ত্বকের বয়স ধরে রাখে অ্যালোভেরা

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২  

ত্বকের বয়স ধরে রাখে অ্যালোভেরা                           
অ্যালোভেরার গুণাগুণ সবার জানা। কিন্তু তার আগে থেকেই অ্যালোভেরার ব্যবহার হয়ে আসছে রূপচর্চায়। তার অন্যতম কারণ হল, অ্যালোভেরা খুব ভালো প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার। তা আপনি ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। এমনকি ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্যও এই প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন। ত্বকের বয়স ধরে রাখার জন্য  অ্যালোভেরা ব্যবহার করতে পারেন। 

অ্যালোভেরার ফেসপ্যাক সম্পর্কে জেনে নিন:

অ্যালোভেরা ও গোলাপ জল
অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে আপনি গোলাপ জল মিশিয়ে লাগাতে পারেন। বানিয়ে নিতে পারেন আপনার পছন্দের ফেসপ্যাক। তার জন্য আপনার প্রয়োজন এক টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল। এক টেবিল চামচ গোলাপ জল। এই দুই উপাদান মিশিয়ে বানিয়ে একটি ফেসপ্যাক বানাতে পারেন। সেটা আপনি সরাসরি মুখে লাগিয়ে নিন। এবার এই ফেসপ্যাক ১৫-২০ মিনিট রেখে দিন। তারপর মুখ ধুয়ে নিন।

অ্যালোভেরা ও মধু
অ্যালোভেরা ও মধুর ফেসপ্যাকও আপনি ত্বকে ব্যবহার করতে পারবেন। এটি আপনার ত্বক ভালো রাখতে বেশ কাজে আসবে। আপনার ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য এই ফেসপ্যাক খুব কার্যকরী। তাই আপনি হাইড্রেটেড ফেসপ্যাক হিসেবে এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন। 

আপনার প্রয়োজন দুই টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল। এক টেবিল চামচ মধু। এক টেবিল চামচ গোলাপ জল। এই তিনটি উপাদান ভালো করে মিশিয়ে নিন। একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। সেটাই আপনার মুখে লাগিয়ে নিন। ১০-১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন আপনার মুখ।

অ্যালোভেরা জেলে আছে নানা উপকারি উপাদান। যেমন এর মধ্য়ে আছে ভিটামিন, এনজাইম, মিনারেল, সুগার, লিগনিন, স্যাপোনিন, স্যালিসাইলিক অ্যাসিড এবং অ্যামিনো অ্যাসিড। ভিটামিন এ, সি এবং ই আছে এই অ্যালোভেরা জেলে। যা অ্যান্টি অক্সিড্যান্টসের ভূমিকা পালন করে। এছাড়াও এতে আছে ভিটামিন বি ১২ , ফলিক অ্যাসিড এবং কোলাইন। তাহলে বুঝতেই পারছেন, ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা কত উপকারি! 

তবে, যেকোন ঘরোয়া উপাদান ব্যবহারের আগে বারবার ভাবুন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

সূত্র: এই সময়

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –