• রোববার   ২২ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বৈশ্বিক সংকট মোকাবেলায় চার দফা প্রস্তাব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনায় এক মাস মৃত্যুহীন বাংলাদেশ বিশ্ব মেডিটেশন দিবস আজ ৪৪তম বিসিএস পরীক্ষা নিয়ে যা জানা গেল রংপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস

জুমার নামাজ কাজা পড়া জায়েজ? 

প্রকাশিত: ৩ ডিসেম্বর ২০২১  

পবিত্র কোরআনে জুমা আদায় করা মানুষের জন্য আবশ্যক করা হয়েছে। এ জন্য প্রতিটি মুসলিমকে অবশ্যই জুমার নামাজ গুরুত্বসহ পড়া উচিত। হাদিসে প্রত্যেকে প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির জন্য জুমা আবশ্যক।

কোনো কারণে যদি জুমার সালাত জামাতে না পড়তে পারেন, তাহলে সেটা কাজা পড়তে পারবেন কি-না, এমন প্রশ্ন অনেকের। জুমার সালাত কাজা পড়া যায় না। এ ক্ষেত্রে আপনাকে জোহরের সালাত পড়তে হবে।

বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ বলেন, জুমার সালাত একাকী পড়া যায় না। জুমার নামাজের জন্য কিছু শর্ত আছে। এর জন্য জামাতের শর্ত আছে, লোকের উপস্থিতি লাগবে। তাই, আপনি একা পড়তে পারবেন না। কোনো কারণে জুমার সালাত মিস করলে আপনি জোহরের নামাজ পড়বেন। এ ক্ষেত্রে আপনি যদি মুসাফির হন, দুই রাকাত পড়বেন, যদি না হন তাহলে চার রাকাত পড়বেন।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি অবহেলা ও অলসতা করে পর পর তিন জুমআ নামাজ পা ছেড়ে দেবে, মহান আল্লাহ তার অন্তরে মোহর মেরে দেবেন।’ (আবু দাউদ)

কোনো ব্যক্তি যদি জুমআ নামাজ পড়তে এসে এক রাকাআত পায় তবে সে ইমামের সালাম ফেরানোর পর বাকি এক রাকাআত পড়ে নিলেই জুমআ আদায় হয়ে যাবে। অনুরুপভাবে কেউ দ্বিতীয় রাকআতের রুকূর আগে ইমামের সঙ্গে নামাজে অংশগ্রহণ করতে পারলে ইমামের সালাম ফেরানোর পর ২ রাকাআত আদায় করলে জুমআ নামাজ আদায় হয়ে যাবে।

তব নামাজের দ্বিতীয় রাকআতে রুকুর পর জামাআতে অংশগ্রহণ করে তবে তার এ অংশগ্রহণ জুমআ হিসিবে বিবেচিত হবে না। বরং তাকে ইমামের সালাম ফেরানোর পর ৪ রাকাআত নামাজ আদায় করতে হবে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –