• শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৪ মুহররম ১৪৪৬

স্বজনদের খুঁজতে বেইলি রোডে মানুষের ভিড়

প্রকাশিত: ১ মার্চ ২০২৪  

রাজধানীর বেইলি রোডের কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন লাগার ঘটনা চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে আটকে পড়াদের স্বজনরা ভিড় করতে থাকেন সেখানে। অনেকেই স্বজনদের খোঁজ না পেয়ে কান্না করতে থাকেন। বেইলি রোডে হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে। অনেককেই নিখোঁজ স্বজনদের ছবি নিয়ে ছোটাছুটি করতে দেখা যায়।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটে। এতে এখন পর্যন্ত ৪৪ জন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৩০ জন। রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওই ভবন থেকে ৭০ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত উৎসুক মানুষের ভিড় এবং আটকে পড়াদের স্বজনদের উপস্থিতিতে উদ্ধার কাজ বিঘ্নিত হওয়ার কারণে ভবনটির সামনে থেকে সবাইকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন পুলিশ সদস্যরা। তবে বারবার চেষ্টা করেও এসব উৎসুক মানুষকে সরাতে পারছে না পুলিশ। অনুরোধ করা সত্ত্বেও ভবনটির সামনে ভিড় কমানো যাচ্ছে না।

কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্ট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করছে ফায়ার সার্ভিস। আগুন মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে। ভয়ংকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় সেখানে। রেস্টুরেন্টে আসা শতাধিক মানুষ আতঙ্কে ছোটাছুটি করতে থাকে। বাঁচাও বাঁচাও চিৎকারে সেখানে ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ভবনে আটকে পড়ে যায় খেতে আসা মানুষরা।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন জানান, বেইলি রোডের কেএফসি ভবনের পাশে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টের ভবনে আগুন লাগার খবর আসে রাত ৯টা ৫০ মিনিটে। খবর পেয়ে প্রথমে চার ইউনিট, পরে আরও চারটি ইউনিট পাঠানো হয়। এরপর আরও চারটি ইউনিট কাজ শুরু করে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে মোট ১৩টি ইউনিট।

রাত পৌনে ১১টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এর মধ্যেই একের পর এক আটকে পড়া মানুষদের উদ্ধার করতে থাকে ফায়ার সার্ভিস। বিভিন্ন ফ্লোরে খাবার খেতে আসা মানুষদের অনেকেই ছাদে গিয়ে নিজেদের রক্ষা করার চেষ্টা করেন। ফায়ার সার্ভিস মই দিয়ে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা করে। ভেতরে আটকে থাকা অনেকেই ধোঁয়ার কারণে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। রাত ১২টা পর্যন্ত ওই ভবন থেকে ৭০ জনকে জীবিত উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –