• বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ২ ১৪৩১

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
আশা করি শিক্ষার্থীরা আদালত থেকে ন্যায়বিচার পাবে: প্রধানমন্ত্রী। নিহতদের পরিবারের জীবন জীবিকার ব্যবস্থা করে দেব: প্রধানমন্ত্রী। শিক্ষার্থী হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী। বিশ্ববাজারে স্বর্ণ মূল্যের নতুন রেকর্ড। বৃহস্পতিবার ঢাকায় মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশের ডাক।

মস্তিষ্কের উন্নতির জন্য আখরোট, অন্যান্য উপকারিতাও অনেক

প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০২৩  

আখরোট অত্যন্ত পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ বাদাম। অনেকেই এমনিই আখরোট খান। খেতে সুস্বাদু হওয়ার পাশাপাশি এতে রয়েছে প্রচুর গুণ। সেই কারণে মস্তিষ্কের উন্নতির জন্য এই বাদাম নিয়মিত খাওয়া উচিত।

আমাদের মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়ায় আখরোট। আখরোটের আকৃতিও মানুষের মস্তিষ্কের মতো। আখরোট হল পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ, ওমেগা-৩ ফ্যাট এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। এগুলো মস্তিষ্কের কোষের ক্ষয়, হৃদ্‌রোগ এবং ক্যান্সার থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। এছাড়াও, আখরোটে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, প্রোটিন এবং ভিটামিন রয়েছে। তাই এগুলোকে সুপারফুড হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

আখরোট সাধারণত হালকা খাবার হিসেবে খাওয়া হয়। এটি স্যালাড, পাস্তা, স্যুপের মতো খাবারেও যোগ করা হয়। আখরোট থেকেও তেল সংগ্রহ করা হয়। এটি প্রায়শই সালাদ ড্রেসিংয়ে ব্যবহৃত হয়, আখরোট থেকে সবচেয়ে ব্যয়বহুল রান্নার তেল তৈরি করে। এই আখরোট খাওয়া শুধু আপনার স্বাস্থ্যের জন্যই ভালো নয়, আপনার ত্বক ও চুলের যত্নের জন্যও ভালো। এখানে আখরোট খাওয়ার কিছু উপকারিতা রয়েছে।

মস্তিষ্কের জন্য উপকারী

আখরোটে এমন কিছু পুষ্টি উপাদান রয়েছে যা মস্তিষ্কের কার্যকারিতা ভালো করতে সাহায্য করে। মানসিক চাপের অনুভূতি কমায়। এগুলি মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করতে, স্মৃতিশক্তি তীক্ষ্ণ করতে খুব কার্যকর। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যে এগুলো খেলে ভুলে যাওয়া কমে যায় এমনকি আলজাইমার রোগের ঝুঁকিও কমে যায়।

হার্টের স্বাস্থ্য ভালো করে

আখরোটে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট রয়েছে যা শরীর থেকে খারাপ চর্বি দূর করতে সাহায্য করে, যার মধ্যে অ্যালফালিনোলিক অ্যাসিড রয়েছে যা ধমনীতে ফ্যাটি জমা প্রতিরোধ করে। ফলে হার্ট সুস্থ থাকে। উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

অন্যান্য উপকারিতা

আখরোটে ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামের মতো খনিজ উপাদান রয়েছে। এগুলো শরীরের হাড় গঠনের জন্য এবং পেশি শক্তিশালী রাখার জন্য প্রয়োজনীয়। এগুলিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে যা আপনার পাচনতন্ত্রের জন্য খুব ভালো। এছাড়াও, পটাশিয়াম, জিংক, ক্যালসিয়াম, আয়রনের মতো খনিজ পদার্থে পরিপূর্ণ আখরোট খেলে ওজন কমে এবং রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকে। ত্বক নরম ও চকচকে করতে এবং চুল পড়া রোধেও আখরোট চমৎকার।

প্রতিদিন কতটুকু খেতে হবে?

আখরোটের উপকারিতা নির্ভর করে আপনি দিনে কতটা খান এবং কীভাবে খান। খুব বেশি খাবেন না। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন যে, দিনে ৩ থেকে ৪টি আখরোট খাওয়াই যথেষ্ট। আখরোট খাওয়ার আগে অন্তত ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। পানিতে ভিজিয়ে রাখা আখরোট সন্ধ্যার হালকা খাবারের সঙ্গে খেতে পারেন।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –