• রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪৩০

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

আমদানি-রফতানিতে যুক্ত হচ্ছে ‘সেবা’, নীতিমালা অনুমোদন

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০২৪  

সেবা অন্তর্ভুক্ত করে ‘আমদানি ও রফতানি আইন, ২০২৪’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। নতুন আইন অনুযায়ী, সেবা আমদানি ও রফতানির ক্ষেত্রে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন লাগবে।

সোমবার (১ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘আমদানি ও রফতানি আইন-২০২৪’ এর খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, এতদিন আমদানি ও রফতানি নিয়ন্ত্রণ বা নিষিদ্ধ করার কাজটি করা হত ১৯৫০ সালের ‘দ্য ইমপোর্টস অ্যান্ড এক্সপোর্টস কনট্রোল অ্যাক্ট’ এর মাধ্যমে। পুরানো আইনগুলো পর্যায়ক্রমে যুগোপযোগী করার নির্দেশনা আছে।  সেই নির্দেশনার আলোকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এই আইন নিয়ে এসেছে। 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ আইনে আগে সেবা কার্যক্রম অন্তর্ভুক্ত ছিল না। শুধু পণ্য ছিল। এখন সেবাকে অন্তর্ভুক্ত করা হল। আগের আইনের সবকিছু এখানে আনা হয়েছে। (আইনটি) বাংলায় অনুবাদ করা হয়েছে আর সেবাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

উদাহরণ দিয়ে সচিব বলেন, আগের আইনে শুধু পণ্যের কথা বলা ছিল। এখন বাণিজ্যিকভাবে সেবা কার্যক্রমকেও এখানে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সেবা বলতে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার ‘জেনারেল এগ্রিমেন্ট অন ট্রেড ইন সার্ভিস এগ্রিমেন্টে’ সেবার সজ্ঞায় বর্ণিত শর্তগুলোকে বিবেচনা করা হয়েছে।

মাহবুব হোসেন আরো বলেন, সরকার কোনো পণ্য বা সেবা নিয়ন্ত্রণ বা নিষিদ্ধ করতে পারবে। এ সম্পর্কিত আদেশ ও বিধিবিধান প্রণয়ন করতে পারবে। আমদানি ও রফতানি নীতি প্রণয়নের দায়িত্ব বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে দেওয়া হয়েছে।

এ আইনে মাত্র ১৬টি ধারা থাকছে জানিয়ে সচিব বলেন, বিধিতে আরো বিস্তারিত থাকবে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –