• সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩ ১৪৩১

  • || ০৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

প্রতিপক্ষের ভয়ে বাড়ি ছাড়া গৃহবধূ

প্রকাশিত: ৪ জুন ২০২৪  

পঞ্চগড়ে বাড়ির চলাচলের রাস্তা নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে শারমিন আক্তার নামে এক গৃহবধূর বাড়িতে দিনের বেলায় হামলা লুটপাট এবং চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেও বিষয়টি সমাধান না হওয়ায় দুইদিন পর রোববার বিকেলে আদালতে পাঁচজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন ওই গৃহবধূ।

আসামিরা হচ্ছেন শারমিন আক্তারের মামা জাহাঙ্গির আলম ঝুনু, শারমিনের বোন নুরুন নাহার শিল্পী, জান্নাতুন ফেরদৌস কেয়া, প্রতিবেশী সালাউদ্দিন। তাদের বাড়ি জেলা শহরের কায়েতপাড়া এলাকায়। তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন বলছেন আসামিরা।

এদিকে মামলা করেও প্রতিপক্ষের ভয়ে সোমবার পর্যন্ত বাড়িতে বসবাস করতে পারছেনা শারমিন আক্তার। সোমবার বিকেলে সাংবাদিকদের কাছে ঘটনাটি নিজেই প্রকাশ করেছেন শারমিন আক্তার। সোমবার বিকেলে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও তিনি জানান।

জানা গেছে, গত ৩০ মে বিকেলে শারমিন আক্তারের বাড়ির সামনে দেশীয় অস্ত্রসহ অভিযুক্ত আসামিরা ঘোরাঘুরি করছিল। এক পর্যায়ে আসামিরা শারমিন আক্তারকে হুমকি দিয়ে বাড়ি থেকে বের করেন। পরে তার কাছে তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করলে শারমিনের বাড়ির দরজা ভেঙে দেয়। সেইসঙ্গে ঘরের মালামাল টাকা লুটপাট করেন। লুটপাটে শারমিন আক্তার বাধা দিলেই তার চুল ধরে টেনে হেঁচড়ে ঘর থেকে বের করে দেন এবং আসামিরা হাতুড়ি দিয়ে ঘরের দেওয়াল ভেঙে ফেলে। এ সময় আলমারি ভেঙে দুই লাখ ত্রিশ হাজার টাকা লুটপাট করেন। সেইসঙ্গে শারমিনকে মেরে গুরুতর আহত করেন। একপর্যায়ে শারমিনকে বিবস্ত্র করেন দুর্বৃত্তরা। এ সময় শারমিনের চিৎকারে রাশেদ মাসুদ বেলি, হারুন, বিজয় ঘটনাস্থলে এসে তাকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করান।

মামলার প্রধান আসামি জাহাঙ্গির আলম ঝুনু জানান, ভাঙচুর লুটপাটের সময় ওই এলাকাতেই ছিলাম না। আটোয়ারি উপজেলায় ব্যক্তিগত কাজে গিয়েছিলাম। যেহেতু ওই এলাকায় উপস্থিত ছিলাম না এজন্য কে বা কারা ভাঙচুর চালিয়েছে আমি অবগত না।

শারমিন আক্তারের বোন নুরুন নাহার শিল্পী জানান, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা। আমার পায়ে সমস্যা। তাছাড়া আমি একজন অধ্যক্ষ হয়ে কেন আমার বোনের বাড়িঘর ভাঙব। 

তিনি বলেন, নানান অজুহাতে শারমিন আকতার গত নয় মাস ধরে আমাদের নামে মামলা করছে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –