• মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলকদ ১৪৪৫

সৌম্যর কনকাশন নিয়ে শ্রীলংকার সন্দেহ

প্রকাশিত: ১৯ মার্চ ২০২৪  

ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে সিরিজ জয়ের কীর্তি গড়েছে বাংলাদেশ। সোমবার চট্টগ্রামে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে লঙ্কানদের গুঁড়িয়ে শিরোপা ঘরে তুলেছে টিম টাইগার্স। এই ম্যাচে অবশ্য স্বাগতিকদের একাধিক ক্রিকেটার ইনজুরিতে পড়েন।

শ্রীলংকা ইনিংসের শেষদিকে মুস্তাফিজুর রহমানের মাসল ক্রাম্প করে। আর বদলি নামা ফিল্ডার জাকের আলী ক্যাচ নিতে গিয়ে এনামুল হকের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান। এতে বুক ও কাঁধে ব্যথা পান জাকের। পরবর্তীতে মুস্তাফিজ ও জাকেরকে স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। 

এরপর শ্রীলংকার ইনিংসের ৪৯তম ওভারের শেষ বলে হাঁটু ও ঘাড়ে ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন সৌম্য সরকার। বাউন্ডারি ফেরাতে গিয়ে লাফ দেন তিনি। এ সময় পড়ে গিয়ে শুরুতে হাঁটুতে ব্যথা পান। এরপর ঘাড়-কাঁধসহ পুরো শরীরে আঘাত পান। 

এরপর সৌম্যর হাঁটু ও শরীর গিয়ে ধাক্কা খায় সাইড লাইনের বিজ্ঞাপনী বোর্ডের সঙ্গে। হাঁটু চেপে মাটিয়ে লুটিয়ে থাকা সৌম্য পরে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠ ত্যাগ করেন এই অলরাউন্ডার।

পরে এক বার্তায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ফিজিও জানান, ‘সৌম্য কনকাশন ইনজুরিতে পড়েছেন। তার মাথা মাটিতে বাড়ি খেয়েছে। যে কারণে ঘাড় শক্ত হয়ে গেছে। মাথা ব্যথা করছে ও দৃষ্টিতে সমস্যা হচ্ছে। ক্রীড়া ক্ষেত্রে স্বীকৃতি মেশিনদ্বারা (স্পোর্টস কনকাশন এসেসমেন্ট টুল ভার্সন ৫) পরীক্ষা করিয়ে তার কনকাশন ধরা পড়েছে।’ 

সৌম্যর কনকাশন ধরা পড়ায় ম্যাচ রেফারি রিচার্ড পাইক্রফটের অনুমতি নিয়ে তার কনকাশন সাব হিসেবে ওপেনার তানজিদ তামিমকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ। 

বিষয়টি নিয়ে তাৎক্ষনিক মাঠে প্রতিক্রিয়া জানানোর পর ম্যাচ শেষেও সৌম্যর কনকাশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে শ্রীলংকা। তানজিদ ৮৪ রানের ইনিংস খেলার পরই সম্ভবত তাদের সংশয় বেড়েছে। 

শ্রীলংকার সহকারী কোচ নাভিদ নেওয়াজ ম্যাচ শেষে বলেন, ‘আমরা কনকাশন বদলি দেখে বিস্মিত হয়েছি। তার এমন কিছু ছিল হয়েছে বলে মনে হয়নি। আমরা ফুটেজ দেখেছিলাম। তাকে ডাইভ দিতে দেখেছি। তার এমন (বড়) কিছুর সঙ্গে সংঘর্ষ হতে দেখিনি।’

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –