ব্রেকিং:
গ্যাভি কোভ্যাক্স সুবিধা থেকে বাংলাদেশ ৬৮ মিলিয়ন বা ৬ কোটি ৮০ লাখ ডোজ করোনার ভ্যাকসিন পাচ্ছে
  • বুধবার   ২৫ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১১ ১৪২৭

  • || ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
দেশের ইতিহাসে প্রথম দুই কার্য দিবসেই শেষ হলো ধর্ষণ মামলার বিচার ধর্মের নামে উস্কানিমূলক বক্তব্য বরদাস্ত করা হবে না- শিবলী সাদিক পাটগ্রামে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চল ঘিরে বিপুল সম্ভাবনা ‘ভ্যাকসিন সংগ্রহের জন্য সকল প্রস্তুতি চূড়ান্ত করা হয়েছে’

গত বছরের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সরকার

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০২০  

গত বছরের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এবার সরকারের আগাম প্রস্তুতিতে স্থিতিশীল রয়েছে দেশের পেঁয়াজের বাজার। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।
সংশ্লিষ্টরা জানান, এবার ভারত ছাড়াও বিভিন্ন দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করে সরকার। এতে দেশের পেঁয়াজ বাজারে স্থিরতা বজায় থাকে। তবে এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করছে দেশি পেঁয়াজ।

গত বছর ভারত হঠাৎ করে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিলে দেশের বাজারে দেখা দেয় অস্থিরতা। লাগামহীভাবে বেড়ে যায় পেঁয়াজের বাজারমূল্য। কেজি প্রতি ৩০০ টাকা পর্যন্ত উঠে। অপরদিকে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমাদানি বন্ধ করা হলে প্রতি কেজি পেঁয়াজের মূল্য ১০০ টাকা পর্যন্ত উঠতে দেখা যায়। 

এ অবস্থায় সরকারসহ দেশের ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন দেশের বাজার থেকে পেঁয়াজ সরবরাহ শুরু করেন। ফলে দ্বিতীয় দফায় পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল রাখা সম্ভব হয়েছে।

এদিকে আমদানিকারকেরা জানান, এ ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে ভারতের ওপর নির্ভরতা কমে আসবে। এ সময় ১১টি দেশের বাজার ধরে রাখতে সরকারের সাহায্য কামনা করেন তারা। 

উল্লেখ্য, সেপ্টেম্বরে মিশর, তুরস্ক ও পাকিস্তানসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানির অনুমতিপত্রে চুক্তি করেছেন দেশীয় ব্যবসায়ীরা। এরপরই সহনীয় মাত্রায় নেমে আসে দেশের বাজারে পেঁয়াজের মূল্য।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –