• বৃহস্পতিবার   ১৮ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৩ ১৪২৯

  • || ১৯ মুহররম ১৪৪৪

সর্বশেষ:
আমাদের বিচার চাইতেও বাধা দেওয়া হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ত্রিভুজ প্রেমের কারণে জীবন দিতে হলো সানজিদাকে: পুলিশ জামানতবিহীন গুচ্ছভিত্তিক ঋণ দেওয়ার নির্দেশ একদিনে ৮ কোটি ডলার বিক্রি করল বাংলাদেশ ব্যাংক কমতে পারে জ্বালানি তেলের দাম

দুর্নীতি দমন কমিশনের নতুন ১২টি কার্যালয় যাত্রা শুরু

প্রকাশিত: ৪ জুলাই ২০২২  

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) নতুন ১২টি কার্যালয় যাত্রা শুরু করেছে।  এর ফলে কাজের গতি আরও বাড়বে বলে আশা করছে কমিশন। 

গতকাল রোববার দুদক চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ, কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, কমিশনার (তদন্ত) জহুরুল হক ও দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেনসহ মহাপরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারা কার্যালয়গুলো উদ্বোধন করেছেন।

যে ১২ জেলায় দুদকের কার্যালয়গুলোর উদ্বোধন হয়েছে সেগুলোর মধ্যে ৯টি কার্যালয় দুইটি করে জেলার সমন্বিত জেলা কার্যালয় হিসেবে কাজ করবে। 

এগুলো হলো — নারায়ণগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ), গাজীপুর (গাজীপুর ও নরসিংদী), জামালপুর (জামালপুর ও শেরপুর), নওগাঁ (নওগাঁ ও জয়পুরহাট), কুড়িগ্রাম (কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট), চাঁদপুর (চাঁদপুর ও লক্ষ্মীপুর), বাগেরহাট (বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা), পিরোজপুর (পিরোজপুর ও ঝালকাঠি) ও ঠাকুরগাঁও (ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড়)।

এছাড়া ঝিনাইদহ কার্যালয়টি ঝিনাইদহ, মাগুরা ও চুয়াডাঙ্গা এই তিন জেলার সমন্বিত জেলা কার্যালয় হিসেবে কাজ করবে। এছাড়াও গোপালগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জেও দুদকের নতুন দুইটি কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়েছে।

নতুন কার্যালয়গুলোর মধ্যে গোপালগঞ্জ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন দুদক চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ। পিরোজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয় উদ্বোধন করেন কমিশনার মো. মোজাম্মেল হক খান। এছাড়া জামালপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয় কমিশনার জহুরুল হক এবং সচিব মো. মাহবুব হোসেন কিশোরগঞ্জ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন।

এর আগে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি কক্সবাজারে (কক্সবাজার ও বান্দরবন সমন্বিত জেলা কার্যালয়) ও ৩০ মার্চ মাদারীপুরে (মাদারীপুর ও শরীয়তপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়) চালু হয় দুদকের নতুন দুইটি কার্যালয়। রোববার নতুন ১২টি কার্যলয় উদ্বোধনের মাধ্যমে দেশের দুদকের মোট কার্যালয় হলো ৩৬টি।

গত বছরের ৬ অক্টোবর কক্সবাজার ও বান্দরবান জেলা নিয়ে কক্সবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয় স্থাপনের ঘোষণা আসে। এরপর গত ১ নভেম্বর আরও ১৩টি জেলা কার্যালয় স্থাপন ও চালুর অনুমোদন দেওয়া হয়। দেশজুড়ে দুর্নীতিবিরোধী কার্যক্রম আরও গতিশীল করতে ১৪টি নতুন সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের অনুমোদন দেওয়া হয় ২০১৮ সালে।

২০০৪ সালের আগে দুর্নীতি দমন ব্যুরোর সময় দেশের ৬৪ জেলাতে ছিল কার্যালয়। দুদক প্রতিষ্ঠার পর তা গুটিয়ে ২২টি করা হয়।  প্রধান কার্যালয়ের ছয়টি অনুবিভাগের আওতায় চলে দুদকের পুরো কার্যক্রম।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –