• বৃহস্পতিবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৪ ১৪২৯

  • || ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শেখ হাসিনার আজ জন্মদিন, জীবন যেন এক ফিনিক্স পাখির গল্প আজ থেকে করোনা টিকার বিশেষ ক্যাম্পেইন রংপুরে বাসের ধাক্কায় নিথর হলেন অটোযাত্রী ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রপাত, প্রাণ গেল কৃষকের পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি, ৩ দিন বাড়ল তদন্ত প্রতিবেদন জমার মেয়াদ

বঙ্গবন্ধুকে সম্মানসূচক মরণোত্তর ডি-লিট ডিগ্রি দেবে ঢাবি

প্রকাশিত: ১০ আগস্ট ২০২২  

বঙ্গবন্ধুকে সম্মানসূচক মরণোত্তর ডি-লিট ডিগ্রি দেবে ঢাবি                     
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রি (মরণোত্তর) প্রদান করবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। বঙ্গবন্ধুকে এই ডিগ্রি প্রদানের লক্ষ্যে আগামী অক্টোবর-ডিসেম্বর মাসে বিশেষ সমাবর্তন আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

আর এই ‘সমাবর্তন বক্তা’ হিসেবে অংশ নেয়ার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম গেব্রেইসাস-কে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ঢাবি কর্তৃপক্ষ। সোমবার (৮ আগস্ট) বাংলাদেশে নিযুক্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ড. বর্ধন জং রান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাতে করলে উপাচার্য তাকে এ বিষয়ে অবহিত করেন। 

২০২০-২১ সালে সরকার ঘোষিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতির পিতাকে সম্মানসূচক এই উপাধিতে ভূষিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। ২০১৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী বক্তব্যে এ কথা জানিয়েছিল উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান। কিন্তু করোনার কারণে সেটি আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা সম্ভব হয়নি। এবার বিশেষ সমাবর্তনে বঙ্গবন্ধুকে সম্মানসূচক ডি-লিট উপাধিতে ভূষিত করা হবে। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধির সঙ্গে সাক্ষাৎকালে উপাচার্য তাকে অবহিত করে বলেন, বিশেষ সমাবর্তনে সমাবর্তন বক্তা হিসেবে অংশগ্রহণের জন্য ইতোমধ্যেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম গেব্রেইসাসকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মর্যাদাপূর্ণ এই বিশেষ অনুষ্ঠানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালকের অংশগ্রহণের সম্ভাব্য সময়সূচি নিয়ে বৈঠকে আলোচনা করা হয়। 

উল্লেখ্য, ডক্টর অব লেটার্স (ডি. লিট) হলো একটি একাডেমিক ডিগ্রি। এটি একটি উচ্চতর ডিগ্রি, যা বিভিন্ন দেশে ডক্টর অব ফিলোসোফির (পিএইচ.ডি.) চেয়েও সম্মানজনক ও ডক্টর অব সাইয়েন্স (এসসি.ডি বা ডি.এসসি.) এর সমতুল্য হিসেবে ধরা হয়। মানবিক কার্যে ও সৃজনশীল শিল্পকলা বা মেধায় মৌলিক অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও পণ্ডিত সমাজ এই ডিগ্রি প্রদান করে থাকে। অর্পণকারীর দরখাস্ত ব্যতীত এই পুরস্কার প্রদান করা হলে, তা সম্মানসূচক ডিগ্রি হিসেবে প্রদান করা হয়। 

যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্রে ডি.লিট. একটি উচ্চতর ডক্টরেট, এবং তা ডক্টর অব ফিলোসোফি (পিএইচডি) ও ডক্টর অব এডুকেশন (এডি.ডি.) থেকে উচ্চতর। কোনো নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে বা গবেষণা ও প্রকাশনায় দীর্ঘ রেকর্ডের অবদানের জন্য এই ডিগ্রি প্রদান করা হয়ে থাকে। লিট.ডি. ডিগ্রি সেই সব প্রার্থীদের প্রদান করা হয়, যাদের প্রকাশিত কাজ ও গবেষণার রেকর্ডে অদ্বিতীয় ও দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। এই ডিগ্রি প্রদানে বিশ্ববিদ্যালয় পর্ষদ ও বোর্ডের অনুমতি প্রয়োজন ও প্রার্থীদের কোনো নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে নথিভুক্ত পাণ্ডিত্য দেখাতে হবে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –