• মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

নির্বাচনে গণমাধ্যম কর্মীদের বাধা দিলে ২-৭ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ২৮ মার্চ ২০২৩  

 
নির্বাচনে গণমাধ্যম কর্মী ও পর্যবেক্ষকদের বাধা দিলে সর্বনিম্ন ২ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৭ বছরের কারাদণ্ডের বিধান রেখে ‘জনপ্রতিনিধিত্ব (সংশোধন) আইন, ২০২৩’-এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে সচিবালয়ে ব্রিফিং করেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. মাহমুদুল হোসাইন খান। তিনি বলেন, এ আইনে কিছু সংশোধনী প্রস্তাব করা হয়েছিল। এর মধ্যে আগে যেমন ছিল যেকোনো ইউলিটি বিল যেদিন মনোনয়নপত্র জমা দেয়া হবে তার সাতদিন আগে জমা দিতে হতো, নাহলে মনোনয়নপত্র বাতিল বলে গণ্য হতো। এখন বিলটা মনোনয়নপত্র যেদিন জমা দেবে, তার আগেরদিন পর্যন্ত জমা দিতে পারবে।


তিনি আরো বলেন, মনোনয়নপত্রের সঙ্গে টিআইএন সার্টিফিকেট সংযুক্ত করতে হবে এবং কত টাকা আয়কর জমা দিয়েছে, সেটাও রশিদ অনুযায়ী দিতে হবে। এটা আগে ছিল না, নতুন করে এ দুটি অংশ যোগ করা হয়েছে।

মাহমুদুল হোসাইন খান বলেন, গণমাধ্যম কর্মী এবং পর্যবেক্ষকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য একটি বিধান রাখা হয়েছে। যদি কেউ গণমাধ্যম কর্মী এবং পর্যবেক্ষকদের আইনানুগ কাজে বাধা দেন, সেক্ষেত্রে ২ থেকে ৭ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।


মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব বলেন, এ বিধানের নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, এখনো ফাইনাল করা হয়নি। আরো কিছু সংশোধন আছে। আরো কিছু মতামতসহ এটা আবার মন্ত্রিসভায় উপস্থাপিত হবে। তারপর কিছু সংযোজন হলে সেটাসহ পাস করা হবে।

তিনি বলেন, আইনে ছোটখাটো অনেকগুলো বিষয় আছে। যেমন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার নিয়োগের আগে শুধু ডিস্ট্রিক্ট (জেলা) উল্লেখ করা ছিল। এখন জেলার পরিবর্তে প্রতিটি আসনে হবে। অর্থাৎ ৩০০ আসনে ৩০০ জন রিটার্নিং অফিসার থাকবে- এমন আলোচনা হয়েছে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –