• শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৭ ১৪৩১

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার অন্যতম নকশাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা শিব নারায়ণ দাস, আজ ৭৮ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন। বন্যায় দুবাই এবং ওমানে বাংলাদেশীসহ ২১ জনের মৃত্যু। আন্তর্জাতিক বাজারে আবারও বাড়ল জ্বালানি তেল ও স্বর্ণের দাম। ইসরায়েলের হামলার পর প্রধান দুটি বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচল শুরু। ইসরায়েল পাল্টা হামলা চালিয়েছে ইরানে।

ব্যায়ামে চোট-আঘাত নিয়ন্ত্রণে করণীয়   

প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০২৩  

 
ব্যায়ামের অভ্যাস গড়ে তোলা তো আর চাট্টিখানি কথা নয়। সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো ব্যায়ামের উপযুক্ত সময় খুঁজে পাওয়া। অনেকের আবার অন্য সমস্যা। ব্যায়াম করতে গেলেই শরীর-ব্যথা বা অহেতুক কোনো চোট পেতেই হয়। ব্যায়াম করলেই আঘাত-চোট পাবেন বিষয়টি এমন নয়। কিছু সহজ পদ্ধতি অনুসরণ করে সহজেই এসব সমস্যা এড়ানো যায়। 

সে বিষয়েই কিছু দিকনির্দেশনা রইলো:

ওয়ার্ম আপ করুন
ব্যায়ামের আগে ওয়ার্ম আপ করাটা জরুরি। ওয়ার্ম আপের মাধ্যমে শরীর গরম হয়। আর পেশি গরম হলে শরীর স্ট্রেস নেয়ার প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে পারে। ওয়ার্ম আপের মাধ্যমে পেশিগুলো অনেকক্ষণ ব্যায়ামের সুযোগ পায়। এমনকি পেশি ঝুলে যাওয়া কিংবা ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনাও হ্রাস পায়। তবে ওয়ার্ম আপের সময় বেশি চাপ নেয়ার দরকার নেই। শরীরে সহ্যক্ষমতার ৪০-৫০ শতাংশ চাপ নিলেই হলো। স্ট্রেচিং বা হালকা দৌড়াদৌড়ি এক্ষেত্রে বেশ কার্যকর।

বাড়তি কিছু করার প্রয়োজন নেই
ব্যায়ামের সময় অনেকে একটু বাড়তি চাপ নিতেই ভালোবাসেন। ওয়ার্ক আউট শুরু করার পর আস্তে আস্তে বিভিন্ন ব্যায়ামের সঙ্গে অভ্যস্ত হতে হয়। শুরুতেই যদি ভারি ব্যায়াম করতে যান বা একেকদিন নতুন কিছু করতে যান তাহলে শরীরে ব্যথা বা চোট লাগবেই। চোট-আঘাত এড়াতে অবশ্যই নিয়ম মেনে চলতে হবে। নিয়মতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এগিয়ে গেলে আপনার সমস্যা হবে না।

চোট পেলে বিশ্রাম
ব্যায়ামের একটি নিয়ম আছে। নিয়ম মেনে ব্যায়াম করতে হবে সত্য। কিন্তু চোট পেলে নিয়মের কিছুটা ব্যত্যয় ঘটাতেই হয়। চোট সারার অপেক্ষা করুন। এসময় যদি খুব বাজে লাগে তাহলে শরীরে স্ট্রেস পড়ে না এমন কোনো ব্যায়াম করুন অথবা ইয়োগা করুন।

ব্যায়ামের সঠিক ফর্ম সচেতনতা
ব্যায়াম করার সময় দেহভঙ্গিমা কেমন হবে তা কিন্তু নির্ধারিত। ব্যায়ামের সময় শরীরের অবয়ব নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি। যারা নতুন ব্যায়াম করতে যান তারা ফর্ম সম্পর্কে অবহিত না হয়েই ব্যায়াম করেন। শরীরের কোনো নির্দিষ্ট অংশে এভাবে চাপ পড়ে। এই চাপ শরীরে বাড়তি ব্যথা তৈরি করে। তাই ব্যায়ামের দেহভঙ্গিমা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ান।

একপাটি ভালো জুতো
ব্যায়ামের ক্ষেত্রে অন্য কোনো উপকরণ না কিনুন একজোড়া ভালো জুতো ঠিকই কেনা জরুরি। জুতোয় বিনিয়োগ আপনার জন্য ক্ষতিকর হবে না। ব্যায়ামের সময় পায়ের ওপর চাপ পড়ে। জুতো শরীরের চাপ সমানভাবে ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করে। এটি ভারি ব্যায়ামের ক্ষেত্রে সত্য। 

সুত্র: হেলথ ইন 

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –