• শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • বৈশাখ ৭ ১৪৩১

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার অন্যতম নকশাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা শিব নারায়ণ দাস, আজ ৭৮ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন। বন্যায় দুবাই এবং ওমানে বাংলাদেশীসহ ২১ জনের মৃত্যু। আন্তর্জাতিক বাজারে আবারও বাড়ল জ্বালানি তেল ও স্বর্ণের দাম। ইসরায়েলের হামলার পর প্রধান দুটি বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচল শুরু। ইসরায়েল পাল্টা হামলা চালিয়েছে ইরানে।

ইমামের রাজকীয় বিদায়

প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

পঞ্চগড় সদর উপজেলার চাকলাহাট বাজার জামে মসজিদের ইমাম ক্বারি শাহার উদ্দীন। দীর্ঘ ২৭ বছর ইমামতি করেছেন তিনি এই মসজিদে। বার্ধক্যের কারণে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি নিয়েছেন। বিদায় বেলায় মুসল্লিদের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন এই ইমাম। রাজকীয় আয়োজনে বিদায় দেওয়া হয়েছে তাকে।

গতকাল শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) জুমার নামাজ শেষে মুসল্লি ও এলাকাবাসী মিলে ইমাম ক্বারি শাহার উদ্দিনকে প্রথমে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশ তৈরি হয়। বিদায় মুহূর্তে মসজিদের পক্ষ থেকে ইমামকে দেওয়া হয় নগদ ৩০ হাজার টাকার চেক। এরপর বিভিন্ন উপহারসামগ্রী দিয়ে ফুল দিয়ে সুসজ্জিত একটি প্রাইভেট কারে উঠিয়ে মোটরসাইকেল বহরের মাধ্যমে ইমামকে নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়।

ক্বারি শাহার উদ্দীন চাকলাহাট ইউনিয়নের কিত্তিনিয়াপাড়া গ্রামের মৃত তফির উদ্দীনের ছেলে। তার বয়স এখন ৭৫ বছর। ২০ বছর বয়সে শুরু করেন ইমামতি। এলাকার তিনটি মসজিদে ২৮ বছর ইমামতি করেন তিনি। এরপর চাকলাহাট বাজার জামে মসজিদে ২৭ বছর ইমামতি করেন। একটানা ৫৫ বছর ইমামতি শেষে বার্ধক্যের কারণে তিনি অবসর নিয়েছেন।  

এমন বিদায়ী সংবর্ধনায় আবেগাপ্লুত হয়েছেন ক্বারি শাহার উদ্দীন। তিনি বলেন, জীবনের দীর্ঘ সময় যাদের ইমামতি করেছি, তাদের এমন আয়োজনে আমি মুগ্ধ। তিনি বাকি জীবনের জন্য সবার কাছে দোয়া চান।

মসজিদের মুসল্লি কামরুজ্জামান বুলেট বলেন, ক্বারি শাহার উদ্দীন আমাদের এলাকার সন্তানদের ইসলাম শিক্ষা দিয়েছেন। ছোট বেলা থেকেই উনার পিছনে নামাজ পড়ছি। আজ তিনি অবসরে গেলেন। তার সম্মানে ছোট পরিসরে সংবর্ধনার আয়োজন করেছি। আমরা উনার নেক হায়াত কামনা করি। আমরা উনার সুস্থতার জন্য দোয়া করছি।

মসজিদটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জফির উদ্দীন বলেন, আজকের দিনটি আমাদের জন্য বেদনার। ক্বারি শাহার উদ্দীন দীর্ঘ ৫৫ বছর আমাদের দ্বীনি শিক্ষায় আলোকিত করেছেন। জীবন জুড়েই ইসলামের খেদমত করেছেন। আমি নিজেও উনার কাছে অনেক কিছু শিখেছি। 

মসজিদের নতুন ইমাম হাফেজ আব্দুস সালাম বলেন, একজন বিদায়ী ইমামকে এমন সংবর্ধনা প্রশংসার দাবি রাখে। আমি মুসল্লিদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি মনে করি, দেশের সব ইমামদের এমনভাবে সম্মান দেওয়া প্রয়োজন।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –