• বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

  • || ১৭ শা'বান ১৪৪৫

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জিতল ভারত

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০২৩  

সদ্য সমাপ্ত ওয়ানডে বিশ্বকাপে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু সেই অজিরাই এবার ভারতের কাছে ধরাশায়ী। এক ম্যাচ হাতে রেখেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের টি-২০ সিরিজ জিতেছে ভারত। 

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) রায়পুরে চতুর্থ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ২০ রানে হারিয়েছে ভারত। ফলে স্বাগতিকরা সিরিজে এগিয়ে গেল ৩-১ ব্যবধানে। রায়পুরে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেটে ১৭৪ রান সংগ্রহ করে ভারত। জবাবে ১৫৪ রানে থামে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস।

ভারতের স্কোর গড় স্কোরের থেকে সামান্য বেশি ছিল। দুর্ভাগ্যজনকভাবে রিংকুর আউট হওয়া এবং শেষদিকে একের পর এক উইকেট পড়ায় বেশি রান ওঠেনি। কিন্তু বল হাতে তা পুষিয়ে দেয় ভারত। আক্সার প্যাটেল নেন ৩ উইকেট। দীপক চাহার ২টি, রবি বিষ্ণু এবং আভেশ খান নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।

এদিন টস জিতে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেন। দলে চারটি বদল আনেন ভারতের অধিনায়ক সূর্যকুমার যাদব। প্রসিদ্ধ কৃষ্ণের জায়গায় প্রথম একাদশে ফেরেন মুকেশ কুমার। শ্রেয়সের এই ম্যাচ থেকেই খেলার কথা ছিল। তিনি আসেন তিলক ভার্মার জায়গায়।

আর্শদীপ সিংয়ের জায়গায় আসেন দীপক চাহার। জিতেশ শর্মা আসেন ঈশান কিষাণের জায়গায়। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে অভিষেক হয়েছে ক্রিস গ্রিনের। অজিরা দলে পাঁচজনকে বদলি করেন। এ ম্যাচে খেলেননি মার্কাস স্টয়নিস, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, জস ইংলিস, ঝাই রিচার্ডসন এবং নাথান এলিস।

শুরুটা ভাল হয়নি ভারতের। অ্যারন হার্ডির প্রথম ওভারে মেডেন হয়। শেষ বলে যশস্বীর আউট হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়। কিন্তু ডিআরএসে বেঁচে যান তিনি। লেগ বাইয়ে এক রান হয়। পরের ওভারে জেসন বেহরেনডর্ফকে দু’টি চার মেরে ১১ রান নেন যশস্বী।

তার পরের ওভারে নবাগত বেন ডোয়ারিশকে তিনটি চার মারেন। ষষ্ঠ ওভারে ওপেনিং জুটিতে ভারতের ৫০ হয়ে যায়। এর পরেই হার্ডির বলে ফিরে যান যশস্বী। ২৮ বলে ৩৭ করেন ভারতের ওপেনার। তিনে নামেন শ্রেয়স। কিন্তু জাতীয় দলের প্রত্যাবর্তনটা ভাল হলো না। 

অষ্টম ওভারেই তানভীর সাঙ্ঘার বলে গ্রিনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন আইয়ার। অষ্টম ওভারে সূর্যকে তুলে নেন বেন। ১ রানেই আউট ভারতের অধিনায়ক। পর পর তিনটি উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়েছিল ভারত। সেই চাপ কাটিয়ে দেন রিংকু। সঙ্গী হন রুতুরাজ।

দু’জনে মিলে চতুর্থ উইকেটে ৪৮ রান তুলে দেন। এর পর সাঙ্ঘা ফেরান রুতুরাজকে (৩২)। নবাগত জিতেশ যোগ দেন রিংকুর সঙ্গে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –