• মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ভারত-বাংলাদেশ স্টার্টআপের সুযোগ বাড়বে: জুনাইদ আহমেদ পলক         

প্রকাশিত: ৩০ জুলাই ২০২৩  

  
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সমগোত্রীয় স্টার্টআপগুলোর মধ্যে সেতুবন্ধে উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। বিষয়টি আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করবো। গতকাল শনিবার হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে ‘বাংলাদেশ স্টাটআপ সামিট ২০২৩’-এর উদ্বোধন শেষে এক বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে, বাংলাদেশ-ভারত স্টাটআপ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম এবং ভার্চুয়াল পোর্টাল ‘ব্রিজ’-এর কার্যক্রম ও সুযোগ বাড়াতে ১২টি ভারতীয় স্টাটআপ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মার সঙ্গে বৈঠক করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে ভারতের প্রাইমারি হেলথ কেয়ারের সিইও সাহিল জাগনানি, ইনোভেশন লার্নিং সল্যুশনস সিইও তারাঞ্জিত সিং, ট্রিস্টল ল্যাব-এর মার্কেটিং লিড শিভানি ত্রিবেদী, জীবিকা হেলথ কেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা জিগনেস প্যাটেল, নেক্স স্কিল ৩৬০ প্রতিষ্ঠাতা সুরাজ মিয়ার, জাস্ট ইলেকট্রিকের সিএমও অনিরুধ বাপট, গোহেম্প অ্যাগ্রোভেঞ্চার্স সহ-প্রতিষ্ঠাতা গৌরব দীক্ষিত, অ্যাটম অ্যালোয় ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের সিটিও বিনোদ মেনন এবং রিভ্যাম্প মোটরের হেড অব পার্টনারশিপ রিধি মহাজন তাদের উদ্ভাবনগুলো উপস্থাপন করেন।

অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ ও স্মার্ট বাংলাদেশ নতুন সম্ভাবনার দুয়ার খুলেছে। আমাদের স্টার্টআপ কমিউনিটির যৌথ প্রচেষ্টায় দুই দেশের প্রবৃদ্ধি বাড়বে। এটা একটি দারুণ উদ্যোগ। আমাদের নতুন ধারণা অনুযায়ী আমরা উভয় দেশ সম্ভাবনার দুয়ার খুলে একসঙ্গে এগিয়ে যাবো।

সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন শতাধিক গ্লোবাল ভিসি/বিনিয়োগকারী, জাতীয়-আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বক্তা এবং ছয় শতাধিক স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান। দুদিনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৪০টি বিভিন্ন সেশন। উদ্বোধনের পর প্রথম দিনই হয়েছে ১৯টি সেশন। দ্বিতীয় দিনে সমাপনী বাদে হবে ২১টি সেশন।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –