• মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৭ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

মায়ের হাতের সঙ্গে বাঁধা ছিল ২ ছেলের মরদেহ

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

মঙ্গলবার দুপুর। দুই ছেলেকে নিয়ে তীরনই নদীপাড়ে গরু চরাতে যান নাছিমা বেগম। তখন তার দুই ছেলে সেখানে খেলা করতে থাকে। তখন জেলেরা সেখান থেকে তাদের সরিয়ে দেন। কিন্তু বিকেল সাড়ে ৩টার পর থেকে তাদের আর দেখা যায়নি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাদের পাওয়া যায়নি। পরে বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তাদের মরদেহ খুঁজে পায় স্থানীয়রা।

ঘটনাটি ঘটেছে রাণীশংকৈল উপজেলার তীরনই নদীপাড়ে। মৃতরা হলেন-কাশিপুর ইউনিয়নের কাশিডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রহিমের স্ত্রী নাছিমা বেগম এবং তার চার বছরের ছেলে সিফাত ও আট বছরের ছেলে শাওন।

জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে দুই ছেলেকে নিয়ে নদীপাড়ে গরু চরাতে যান নাছিমা বেগম। তখন তার দুই ছেলে সেখানে খেলা করতে থাকে। তখন জেলেরা সেখান থেকে তাদের সরিয়ে দেন। কিন্তু বিকেল সাড়ে ৩টার পর থেকে তাদের আর দেখা যায়নি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাদের পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, তারা নদীতে পড়ে গেছে। পরে বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তাদের মরদেহ খুঁজে পান স্থানীয়রা।

কাশিপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান বলেন, নদীর তীরে গরু চরাতে গিয়ে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে দুই ছেলেসহ নিখোঁজ হন নাছিমা বেগম। ধারণা করা হয়, তারা নদীতে পড়ে মারা গেছেন। সারাদিন এবং সারারাত খোঁজাখুঁজির পরে তাদের পাওয়া যায়নি। বুধবার সকালে মায়ের হাতের সঙ্গে দুই বাচ্চার হাত বাঁধা মরদেহ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়।

রাণীশংকৈল থানার ওসি মো. গুলফামুল ইসলাম মণ্ডল বলেন, বুধবার সকালে তাদের নদীতে ভাসতে দেখে উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। পুলিশের একটি দল সেখানে কাজ করছে। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –