• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ওয়াদা করুন, নৌকায় ভোট দেবেন: প্রধানমন্ত্রী কুড়িগ্রামে জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ সাত জুয়াড়ি গ্রেফতার এসএসসি-সমমানের পরীক্ষা শুরু ৩০ এপ্রিল হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করবে সরকার নীলফামারী জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মমতাজুল, সম্পাদক অক্ষয়

বোদায় যাদুকরদের ‘পাতা খেলা’ দেখলো হাজারো দর্শক

প্রকাশিত: ৬ জানুয়ারি ২০২৩  

বোদায় যাদুকরদের ‘পাতা খেলা’ দেখলো হাজারো দর্শক                       
পঞ্চগড়ের বোদায় অনুষ্ঠিত হয়েছে হারিয়ে যাওয়া গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী পাতা খেলা। গতকাল বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) বিকেলে বোদা উপজেলার পাঁচপীড় ইউপির দক্ষিণ কালিবাড়ী হারামজাদা ধাম এলাকায় খেলাটির আয়োজন করে পাঁচপীর ইউনিয়ন কৃষকলীগ। খেলাটি দেখতে বিভিন্ন বয়সী হাজার হাজার দর্শকের উপচেপড়া সমাগম ঘটে। 

বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে খেলাটি। বিভিন্ন জায়গা থেকে চারটি মাহান (যাদুকর) দল অংশ নেন খেলায়। মাঠের মাঝখানে একটি কলাগাছ পুঁতে শুরু হয় খেলা। সেখানে তিন ব্যক্তিকে রেখে তান্ত্রিক বা যাদুকররা নিজেদের তন্ত্র-মন্ত্রের জোরে নিজেদের কাছে টানতে থাকেন। এতে এক দল বিজয়ী হলে তাদেরকে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

খেলা দেখতে আসা আকবর আলী, সুমন চন্দ্র, জুয়েলসহ কয়েকজন দর্শক জানান, কালের বির্বতনে গ্রামীণ খেলাগুলো হারিয়ে যেতে বসেছে। ‘পাতা খেলা’ টি অত্যন্ত আনন্দের। এ খেলায় যাদুকররা অংশ নিয়ে থাকে। অনেক দিন পর এমন খেলার কথা শুনে বাড়িতে থাকতে পারিনি। খেলাটি দেখতে ছুটে আসি। বেশ আনন্দ চিত্তে উপভোগ করলাম। 

আরেক দর্শক ইশিতা রানী ও মাসুদা পারভীন জানান, জীবনে প্রথম দেখলাম এমন অদ্ভুত খেলা ‘পাতা খেলা’। তান্ত্রিকদের মন্ত্র ভিত্তিক খেলাটি সত্যিই উপভোগ্য। অনেক আনন্দ হলো। খেলাটি আরও আয়োজন করা উচিত। 

জানা যায়, পাতা খেলা-গ্রামবাংলার এক ঐতিহ্যবাহী খেলা। তন্ত্র-মন্ত্রের মাধ্যমে পাতা টেনে আনা হয় নিজেদের কাছে। যে বেশি পাতা টানেন সেই বিজয়ী হয়। তাকে বিজয়ী হিসেবে পুরস্কৃত করা হয়।

খেলার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাঁচপীর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাবু অজয় কুমার রায়, বোদা উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাকোয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সায়েদ জাহাঙ্গীর হাসান সবুজ প্রমুখ। এছাড়াও পাঁচপীর ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি ধনেশ্বর রায়, সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী, কৃষকলীগ নেতা মাজম আলী ফকিরসহ, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও কৃষক লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পাঁচপীর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাবু অজয় কুমার রায় বলেন, আমাদের গ্রাম থেকে অনেকগুলো খেলা হারিয়ে গেছে। পাখি খেলা বা বিভিন্ন যে খেলা থাকে যেমন-পাতা খেলা আছে। তা আমরা অনেকেই জানি না এবং আমাদের সন্তানরাও জানে না। এমনকি আমি নিজেও এ খেলা এর আগে দেখিনি। হারিয়ে যাওয়া খেলাধুলাকে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।

খেলার আয়োজকরা জানান, খেলাটি গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী খেলা। খেলাটি বিলুপ্তির পথে। খেলাটি ধরে রাখতে ও পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে এ আয়োজন। আজকে যারা জয়ী হয়েছেন তাদেরকে অভিনন্দন। আর যারা জয়ী হতে পারেন নাই, তারা আগামীবার জয়ী হবে। বিশেষ করে স্থানীয়ভাবে আর্থিক সহযোগিতা পেলে প্রতিবছর খেলাটির আয়োজন করার চিন্তা ভাবনা রয়েছে।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –