• সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৯

  • || ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
গুজবে কান দিয়ে ব্যাংক থেকে টাকা না তোলার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উন্নত বাংলাদেশ গড়তে বিজ্ঞান চর্চা বাড়াতে হবে: সমাজকল্যাণমন্ত্রী সবাইকে ডোপ টেস্টের আওতায় আনা দরকার: ডেপুটি স্পিকার শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সবাইকে কাজ করতে হবে: পরিবেশমন্ত্রী বিএনপি থেকে নিজেদের সম্পদ রক্ষা করতে হবে: এলজিআরডিমন্ত্রী

২০৪১ সালের মধ্যে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ হতে চাই: টেলিযোগাযোগমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২২  

২০৪১ সালের মধ্যে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ হতে চাই: টেলিযোগাযোগমন্ত্রী               
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেছেন, আমরা ২০১৮ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত হয়েছি। এ সফলতা ধরে রেখে ২০৪১ সালের মধ্যে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ এ রূপান্তরিত হতে চাই।

রাজধানীর গুলশানের হুয়াওয়ে বাংলাদেশ একাডেমিতে ‘কানেকটিভিটি-ইনোভেট ফর ইমপ্যাক্ট’ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল মাধ্যমে গতকাল বুধবার তিনি এ কথা বলেন।

মোস্তফা জব্বার বলেন, টেলিকমিউনিকেশনের মূল উদ্দেশ্য হলো একটি দেশের পুরো জনসংখ্যাকে যোগাযোগের আওতায় নিয়ে আসা। করোনা এবং এর পরবর্তী সময়ে টেলিকম নেটওয়ার্কের ব্যবহার অনেক বেড়ে যায়। দৈনন্দিন কাজকর্মে মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করতে থাকে। 

তিনি বলেন, ১৯৯৭ সালে আমাদের ২জি ইন্টারনেটের যাত্রা শুরু হয়। ২০১৩ সালে থ্রিজি এবং ২০১৮ সালে ফোরজি ইন্টারনেটে প্রবেশ করি। দ্রুতই আমরা ৫জি ইন্টারনেটে প্রবেশ করবো। 

টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষকে কানেক্টিভিটির আওতায় নিয়ে আসা একটা চ্যালেঞ্জিং কাজ ছিল। কারণ এখানে ভূমির নানা রকম তারতম্য ছিল। সমতল, পাহাড়, নদী-সাগর ইত্যাদি। একই সঙ্গে এটি ঘনবসতিপূর্ণ একটি দেশ। তবে আমরা এখন বিশালসংখ্যক মানুষকে ফোরজি ইন্টারনেটের আওতায় নিয়ে আসতে পেরেছি।

ঢাকায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হুয়াওয়ে টেকনোলজি বাংলাদেশের হেড অব মিডিয়া তানভীর আহমেদ, এশিয়াটিক ৩৬০ এর মিডিয়া রিলেশনস অফিসার উম্মে সালমা প্রমুখ।

– দৈনিক পঞ্চগড় নিউজ ডেস্ক –